তথ্য অধিকার আইন

তথ্য জানা আমাদের মৌলিক অধিকার
Subscribe

কেন তথ্য চাইতে হবে এবং তা পেতে জনগণকে কী করতে হবে?

আমরা অনেক সময়ই ভাবি আমাদের দেশের সরকারী কর্মকর্তা- কর্মচারীবৃন্দ, অর্থাৎ জনগণের সেবায় জারা নিয়োজিত তারা সবাই যদি সৎ ও দায়িত্ববান হতেন এবং নিষ্ঠারসঙ্গে কাজ করতেন তাহলে দেশের আরো অনেক উন্নতি হত। তবে আমরা এটাও জানি যে, জনগণের কাছে সরকারকে এবং সরকারী কর্মকর্তা- কর্মচারীদের জবাবদিহি করতে না পারলে তাদের কাছ থেকে এই পরিবর্তন আশা করা যায় না। আর তাদের  জবাবদিহিতা ন্থাপন হলে তাদের দুর্নীতি যেমন কিছুতা হলেও লোপ পাবে, তেমনি কাজে ফাঁকি দেবার সুযোগও কম হবে। তারা জানবে যে সরকার যেহেতু জনগণের পয়সায় চলে তাই তারা জনগণের কাছে, অর্থাৎ ধনী-দরিদ্র নির্বিশেষে বাংলাদেশের সব নাগরিকের কাছে দায়বদ্ধ।

তবে জবাবদিহিতা মুখে বলেই বা আইন করেই ন্থাপন হবে না। তা করতে নাগরিক হিসেবে জনগণকে বিশেষ কিছু দায়িত্ব পালন করতে হবে। এরজন্যে সরকারী (ও এনজিও-দের ) কাজ সম্বন্ধে তাদের জানতে হবে। সরকারী কর্মকর্তা- কর্মচারীরা কী কাজ করে, কীভাবে সিদ্ধান্ত নেয়, কী কী সিদ্ধান্ত নেয়, কীভাবে তা বাস্তবায়ন করে ইত্যাদি অনেক কিছু জানতে হবে। এগুলো খুব জরুরী তথ্য। এগুলো প্রকাশ না হলে সরকারী কর্মকর্তা- কর্মচারীরা কাজে কোনো অবহেলা করছে কিনা, দুর্নীতির আশ্রয় নিচ্ছে কিনা জানা যাবে না।

তাহলে দেখা যাচ্ছে, সরকারী ( ও অনেক এনজিও) কাজ সংক্রান্ত অনেক তথ্য দেশের সব নাগরিকেরই জানা প্রয়োজন। বিদেশীরা যখন আমাদের দেশ শাসন করতো তখন তারা ঠিক করেছিল যে সরকারী কাজের এইসব তথ্য তারা জনগণকে জানাবে না। কারণ তাহলে তারা সরকারের অনেক কিরতি-কলাপ জেনে যাবে, যার ফলে তাদের অসুবিধা হতে পারে, ভাবমূর্তিরও ক্ষতি হতে পারে। তাই তারা “সরকারী গোপনীয়তা আইন” নামে একটি আইন তৈরী করেছিল। সরকারী কর্মচারীরা তখন এই আইনের সুবাদে অনেক অবৈধ কাজ ক’রে পার পেয়ে যেত। জনগণ জানতে পারতো না কারা কি দায়িত্ব পালন করছে। তাই এইসব কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরও তাদের অপকর্মের জন্যে চিনহিত করা যেত না।

তবে গত দুই দশকে বিশ্বব্যাপী গণতন্ত্রের অগ্রযাত্রার যুগে প্রগতিশীল বেশিরভাগ দেশেই আইন ক’রে জনগণের সরকারী তথ্য জানার অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে। আর অন্যান্য অনেক দেশের তুলনায় একটু দেরি করে হলেও বাংলাদেশে “তথ্য অধিকার আইন” নামে একটি নতুন আইন ২০০৯ সনের ১লা জুলাই থেকে কার্যকর করা হয়েছে। এই আইন প্রয়োগ করে এখন জনগণ সরকারী কর্তৃপক্ষের কাছে তাদের কাজ সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য চাইতে পারে, এমন কি অনেক অনেক বেসরকারী প্রতিষ্ঠান থেকেও। এইসব তথ্য জেনে তারা যেমন নিজেরা উপকৃত হতে পারে, তেমনি সরকারী কাজে স্বচ্ছতা আনতে এবং দুর্নীতি রোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে, যাতে দেশ ও দশের উপকার হয়।

বিভিন্ন খাতে সম্ভাব্য প্রশ্নের তালিকা

Leave a Reply

  • তথ্য চাওয়া জনগণের অধিকার

    Right to Information
    RTI Poster
    RTI meeting at RIB
    Sonja at RIB
    information commissionar
    openning of the website
    Poster
  • Total Visitor

    • Total Visit: 113,671